মানুষগুলো অন্যরকম কখনো একরকম

কুকুর, শূকর, বানর। বানর, শূকর, কুকুর।

কুকুরগুলো লেজ নেড়ে প্রভুকে জানায়, আছি;

তুত বললেই লুফে নেবো তোমার দয়া

প্রভু কুকুর চেনে; কুকুর প্রভু চেনে কি?

কুকুর ও প্রভুর মাঝে একটি জমিন, আকাশ জীবন,

বৃক্ষ বৃষ্টি, রোদেলা দুপুর, উতলা রজনী!

কোজাগোরি জোছনায় ঘুমকাতুরে ঈশ্বর!

কুকুরগুলো ঘোঁৎ ঘোঁৎ করে, ক্ষুধার আগুন জ্বালায়;

বর্ণচোরা বানরের ঘর পোড়ে, জায়া, জননী, কন্যা কাঁদে

কথা বলো; প্রতিরোধের কথা বলো, আমাদের যা কিছু আছে

তাই নিয়ে লড়ো, বানরটি কথা বলেও বলে না; ভাবে

ঠিক প্রভু নির্বাচনের আগে পাঁচ বছর আগে বলবে।

বাচাল বানরটি আরো বাচাল হয়, ধর্মনিরপেক্ষতার সাজে

গণতন্ত্র, সমাজতন্ত্র, আরো কি সব যেন বলে –

কার্তিকের কুকুরগুলো কামজ্বরে কাতর, বর্ণচোরা বানরটি

দেখে পরিবারতন্ত্র, ভাগতন্ত্র, ভোগতন্ত্র

মোটা বুদ্ধির মানুষটি ঘুমায়; সকালের রোদে চিক চিক করে

চিকন বুদ্ধির মানুষের জিহ্বা।

 

মানুষগুলো অন্যরকম, কখনো একরকম,

কুকুর, শূকর, বানর-শূকর, বানর, মানুষ।

মাকুশ – মানুষ, কুকুর ও শূকর

3 thoughts on “মাকুশ – মানুষ, কুকুর ও শূকর

Leave a Reply