আজ আমি আপনাদের কাছে নিয়ে এসেছি ব্লক সাইট অ্যাক্সেস করার কিছু পদ্ধতি। যেগুলো দিয়ে আপনি খুব সহজেই ব্লক করা সাইটে প্রবেশ করতে পারবেন।যেমন এখন আমদের দেশে ইউটিউব বন্ধ আছে।আর বর্তমানে যে পরিস্থিতি তাতে হঠাৎ করে ফেসবুক টুইটার বন্ধ হয়ে গেলেও আশ্চর্য হবার কিছু নাই।আমি যে পদ্ধতিগুলো বলব সেগুলো ১০০% কার্যকর।

 

১.Ultrasurf  ব্যাবহার করে : আপনারা আগে কেউ যদি এটা ব্যাবহার করা থাকেন তাহলে যানেন যে এটা কতটা কার্যকর।এটার ব্যাবহার পদ্ধতি খুবই সহজ।এখান থেকে সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করুন। তারপর ওপেন করুনএখন কানেক্ট করুন> কিছুক্ষণ অপেক্ষা করুন।successfully connected to server লেখা আসলে আপনি ইউটিউবসহ সকল ব্লক করা সাইট ভিসিট করতে পারবেন।

 

২. PD-Proxy VPN Service ব্যাবহার করে : এটা সম্পর্কে বর্তমানে আমরা সকলেই কমবেশি জানি। কারন এটি ব্যাবহার করে অনেকেই গ্রামিনফোনে ফ্রি ইন্টারনেট ব্যাবহার করছে।এটি একটি ভিপিএন সার্ভিস।ফ্রি রেজিস্ট্রেশন করলে আপনি দৈনিক ১০০ MB ব্যাবহার করতে পারবেন।এটির ব্যাবহার খুবই সোজা।প্রথমে আপনাকে PD-Proxy VPN Service  এই লিঙ্কে গিয়ে সাইন আপে ক্লিক করে ফ্রি আকাউন্ট খুলে নিন। এখন এখান থেকে ১.৪৫ MB এর সফটওয়্যারটি ডাউনলোড করে আনজিপ করুন।এখন PD-Proxy.exe লেখা আইকনে ক্লিক করে সফটওয়্যারটি ওপেন করুন।এখন আপনার ইউজারনেম ও পাসওয়ার্ড দিয়ে Connect এ ক্লিক করুন এবং অপেক্ষা করুন।কিছুক্ষণের মধ্যেই আপনি PD-Proxy এর সার্ভারে কানেক্ট হয়ে যাবেন।ফ্রি মেম্বার হিসেবে আপনি শুধু DEMO SERVER 1 ও ২ তে কানেক্ট করতে পারবেন।এছাড়া আপনি যদি চান তাহলে আপনি প্রিমিয়াম মেম্বার হতে পারেন। প্রিমিয়াম মেম্বার হলে আপনি আনলিমিটেড MB ব্যাবহার করতে পারবেন।এছাড়া আপনি এদের সকল সার্ভারে কানেক্ট করতে পারবেন। প্রিমিয়াম মেম্বার হলে আপনি টরেন্ট সার্ভারের মাধ্যমে টরেন্ট ফাইলও ডাউনলোড করতে পারবেন।এর আরেকটি সুবিধা হল এটি ব্যাবহার করলে আপনার ইন্টারনেটের স্পিড হ্রাস পাবে না।

 

ইউটিউব বা অন্যান্য ব্লক করা সাইট অ্যাক্সেস করার আরও অনেক পদ্ধতি আছে।সেগুলো পরে আবার দেব বলে আশা করি।তবে এখানে উল্লিখিত পদ্ধতিগুলো খুবই কার্যকর। আশা করি আপনাদের কাজে লাগবে।

কষ্ট করে আমার পোস্টটি পড়ার জন্য ধন্যবাদ।ভালো থাকবেন।

আমার ব্লগ

>>>দেখে নিন ব্লক করা সাইট(ইউটিউব)অ্যাক্সেস করার দুটি কার্যকর পদ্ধতি<<<

Leave a Reply