জীবন-৯১

হাতের ভেতর হাত ছিল তার

চোখে ছিল চোখ,

বুকের ভেতর লুকাই আমি

তার সে অমল মুখ।

জীবন পরে কেবল গড়ায়

সময় যে যায় চলে,

একদিন সে উধাও হলো

কিছুই তো না বলে।

সে এখন আর নেয় না খবর

হাসে না সেই হাসি,

কদমতলায় আর বাজে না

শ্যামল-কোমল বাঁশি।

এখন রাধা–আয়ান ঘোষের,

দু’হাত ভরা টাকা–ঘুষের!

 

জীবন-৯২

শোক কতো আর সইবে তুমি

দুঃখ কতো সইবে,

আর কতোকাল কান্নাসুরে

কষ্টকথা কইবে।

যন্ত্রণাতে কুঁকড়ে থেকে

জ্বালায় তুমি জ্বলবে,

বিষাদগীতি গাইবে কেবল

বিরহকাল চলবে।

একটুখানি হাসলে জীবন

আনন্দিত ঝলমল,

সেই সুখেতে জমবে শিশির

ঘাসের বুকে টলমল!

 

জীবন-৯৩

রাত-জোনাকি মিটমিটে চাঁদ

দপদপে অই তারা,

তোমায় পেলে হয় উজালা

নেভে তোমায় ছাড়া।

তুমি এলেই চাঁদ ঝলমল

তারার হাসি অপার,

আসলে তুমি জোনাক জ্বলে

কী ঘটে এক ব্যাপার!

না আসলে ঘোর আঁধারে

চাঁদ ডুবে যায় নিশ্চুপ,

জোনাকগুলো হয় যে উধাও

সকল আলো পায় লোপ!

তুমি জীবন

তুমি-ই রসের ধারা,

তোমায় ছাড়া

সব-ই ছন্নছাড়া!

 

জীবন-৯৪

বক্তৃতাতে খুব পাকা সে

করলে শুরু কথা,

অহর্নিশি বকবকাবে

নেই কোনো অন্যথা।

থামতে যদি বলো তাকে

দেবে ভীষণ আড়ি,

একটানেতে উপড়ে নেবে

তোমার চুল ও দাড়ি!

জীবন ভরে যাও বুঝিয়ে তাকে,

দেখো তবু ঘুরবে একই পাঁকে!

 

জীবন-৯৫

আশ্বিনেতে বর্ষা নাচে দু’পায়,

বাইরে যাবার নেই যে কোনো উপায়।

ঘরবন্দি মন বন্দি ফ্রেমে,

আসে না যে চিঠি তো নীল খামে।

তাই তো বসে বসে কেবল ভাবি,

কই হারালো বিশাল ঘরের চাবি!

বন্ধঘরে বন্ধু সে তো নাই,

বন্ধ্যাসময় – শেষ তো নাহি পাই।

জীবন তবে এমনি যাবে বয়ে,

জীবন-কথা যাবো কাকে কয়ে?

 

জীবন-৯৬

চোখের মাথা খাওয়ার বাকি

আর কি আছে,

গোঁফে জবর তেল মেখেছি

কাঁঠাল গাছে।

পাকা ধানে মই দিয়েছি

নিজের ভুলে,

চুন মেখেছি কালির বদল

মাথার চুলে!

জীবন তবু শোনায় যে গান

দুঃখ ভোলার,

জীবন সেতো অন্ধগ্রামে

জ্বালায় সোলার!

 

জীবন-৯৭

হাত বদলের রাজনীতি আর

কদিন ধরে চলবে,

চেয়ার খেলায় মত্ত সবাই

দেশ নিয়ে কে বলবে।

যাচ্ছে তো দেশ রসাতলে

সবাই দেখেও অন্ধ,

রাজতন্ত্র চলছে যে খুব

লোকের কপাল মন্দ!

চলবে জীবন

আর কতোকাল এমনি,

আমপাবলিক

যেমন আছে তেমনি!

 

জীবন-৯৮

ভয় দেখিয়ে ভাবছ বুঝি

চালিয়ে যাবে নৌকা,

জনগণ আর নয়তো হাবা

ডোবায় পেলেই মওকা।

জোর দেখিয়ে চাইছো পেতে

ধানের শিষ,

পাবলিকে ঠিক রায় দিতে

ক-রেনা মিস!

জীবন সাজায় তারা,

আমপাবলিক যারা!

 

জীবন-৯৯

অনেক সময়

জীবন কথা বলে,

অনেক সময়

বিফলে যায় চলে।

অনেক সময়

সময় যেতে চায় না,

অনেক সময়

সময় পাওয়া যায় না।

অনেক সময় – অনন্ত,

অনেক সময় মরণ তো!

 

জীবন-১০০ (সেঞ্চুরি…)

জীবন নিয়ে অনেক হলো

কাটাছেঁড়া,

এবার তবে কাটুক জীবন

নজরকাড়া!

জীবন নিয়ে কথা বলার

শেষ কী আছে?

তাই তো এবার চুপ মেরে যাই

বকবে পাছে!

বলব এবার অন্যবিধ কথা,

আপাতত জীবন জুড়ে-

থাকুক নীরবতা!

জীবন-৯১-১০০!

Leave a Reply