ভালবেসে মানুষ পরষ্পর কাছে আসে
আমরা হয়েছি আরো বিচ্ছিন্ন ভালবেসে!
এত কাছে আছি, তবু দুজনার মাঝে
মস্ত কাচের দেয়াল-
উঠেছে কবে, অযতনে
সে কখা হয়নি খেয়াল।
আমরা রচেছি কত সুরমালা
রচেছি দীর্ঘশ্বাস,
আমাদের বন্ধন প্রেম হয়ে ওঠার
পায়নি’ক অবকাশ।
কাছাকাছি আসতে গিয়ে আমরা কেবল
সরে গেছি আরও দূরে-
বাধেনি’ক বাসা লুকায়িত আশা
মনের অন্তপুরে।
আমরা দুজন একত্রে ভেসেছি-ডুবেছি
জলেছি-পুড়েছি কত,
দিনে দিনে তার বেড়েছে ব্যপ্তি
শুকায়নি সে ক্ষত
আমরা মিলেছি কল্পলোকে, মর্ত্যলোকে নয়
আমাদের আশা ভালবাসা শুধু
কালের সাথে হয়েছে ক্ষয়।
আমাদের মনের মিল হয়েছে
মতের হয়নি’ক যোগ,
আমরা কেদেছি পরষ্পরের জন্য অবিরত
প্রকাশিত হয়নি সেই শোক।
পরষ্পরের জন্য আমাদের বুকের গহীন তলে,
গভীরে প্রেমের নদী
আমরা বুঝিনি কখনোই তা
তবু বয়েছে নিরবধি।
একি পথে সমন্তরাল আমরা হেটেছি যোজন দুর
এক বাশিতে আমরা দোহে তুলেছি মিলন সুর,
সে সুরে আমাদের ধরা রাঙেনি অবিরত
মিলনবীণায় হয়েছে ক্রমশ বিরহবীণায় পরিণত।
আমরা দুজন হয়েছি আপন
শুধুই মনের টানে,
সময় আমাদের করেছে পৃথক
সময়ের প্রয়োজনে।
আমরা হেসেছি কেঁদেছি অনেক
ঈরষ্পরের তরে-
আমাদের মোহ ঢেকেছে ক্রমশ
বিচ্ছেদের অধারে।
একি মোহনার সঙ্গমতটে
আমার করেছি বাস-
সেথা বারে বারে এসে আঘাত হেনেছে
চোরাবালি অবিশ্বাস।
আমাদের ভালবাসা ইতিহাস হয়নি
বিশ্বাস হয়নি কিংবদন্তীর কথা,
আমাদের অদৃশ্য পেমের মিলন হয়নি
বিচ্ছেদ এনেছে পূর্ণতা।
আমাদের বন্ধন নেয়নি’ক কিছু
দিয়েছে উগরে সব
আমাদের পথচলা ছিল নিঃশব্দের
কভু তোলেনি’ক কলরব।
তলে তলে আমরা ভেসেছি সর্বনাশের নায়.
উপে উগড়েম দিয়েছি হাসি-
এক জীবনে দোহে সব বিকিয়েছি
করে ভালবাসাবাসি।
আমাদের ভালবাসা হয়নিক কভু
যুগের সমান্তরালে তুল্য,
আগাগোড়া তা পরিচিতি লভেছে
বেহিসেবী বালখিল্য।
আমাদের বিশ্বাস পরষ্পরের
হৃদয় করেছে ছেদ,
আসেনি’ক কোন সফলতা প্রাপ্তি
দিয়েছে অমরত্বের বিচ্ছেদ।

ঢাকা, ১৪০৪-০২.০৫.২০১২ইং

বিষমবাহু

One thought on “বিষমবাহু

Leave a Reply