(একটি সত্য ঘটনা অবলম্বনে………)

গত কয়েকদিন আমাদের দেশে তথা কথিত কিছু দলের তান্ডব চলছে। সরকার বিরোধী আন্দোলনে নামলেও তাদের হাত থেকে রেহাই পায় নি সাধারন মানুষও। তেমনই এক তান্ডবের সময় ছিল ৩০.০১.২০১৩ সন্ধ্যা ৭.৩০ মিনিট। স্থানঃ মগবাজার মোড়।

বলাকা বাসে বসে আছি। রাস্তায় যথারীতি জ্যাম। হঠাৎ সামনের বাসে জ্বলে উঠল আগুনের শিখা। মুহূর্তের মধ্যে চিৎকার আর কোলাহলে ভরে গেলো গোটা এলাকা। এক পুলিশ এগিয়ে এসেছিলেন জ্বলন্ত বাস থেকে যাত্রীদের নামতে সাহায্য করতে। কিন্তু শেষ রক্ষা হল না। আমাদের দামাল (!) প্রতিবাদী (!) ছেলেরা তাকে ঘিরে ফেলে বেদম মার শুরু করল।

৫ মিনিট পরের কথা……

রাস্তায় রক্তাক্ত সেই পুলিশটিকে উদ্ধার করতে ঘটনাস্থলে আসল ১৫-২০ জন পুলিশ। সামনের বাসটি তখনো জ্বলছে। ফায়ার সার্ভিস এলো। আগুন নেভানো হচ্ছে। আশেপাশের বাস গুলোতে ছড়িয়ে পড়েছে আতংক। একজন পুলিশ আমি যে বাসে ছিলাম তাতে উঠে বলল, “আপনারা দয়া করে বাস থেকে নামবেন না, ভয় পাবেন না”

আমার পাশের সিটে বসে ছিলেন ৬০+ বয়সী এক বৃদ্ধ। তিনি দাড়িয়ে পুলিশটিকে উদ্দেশ্য করে বললেন, “৭১ সনে এই হাত দিয়া পাকিস্তানি শালা গুলারে মারছি। এইগুলা কোন জায়গার কি? আমি তো মুক্তিযোদ্ধা,আমি এইগুলারে ভয় পামু ক্যান?”

গর্বে বুকটা ভরে গেল এই ভেবে যে আমি এমন একটা দেশে বাস করি যেখানে উনার মত সাহসী মানুষ গুলো আছে। আবার খুব লজ্জাও লাগলো এই ভেবে যে, তার বয়স ৬০+ ।কিন্তু এখনো তার সাহসের কোনো কমতি হয় নি। অথচ আমরা তরুণ প্রজন্ম অন্যায় দেখলে ঝড় তুলি ফেসবুক স্ট্যাটাসে, আন্দোলন করি মিসকলের মাধ্যমে। কিন্তু সত্যি কথা বলতে কি আমাদের কারোরই এতটুকু সাহস নেই যে আমরা রাজপথে নেমে দাবি আদায় করব। মাঝে মাঝে ভয় লাগে যে, হঠাৎ যদি ১৯৭১ সালের মত দেশে যুদ্ধ শুরু হয়, তাহলে আমরা দামাল (!) ছেলেরা ফেসবুকেই ইনশাআল্লাহ স্বাধীনতার ঘোষণা দিব + দেশও স্বাধীন করে ফেলব।। সেই দিনের অপেক্ষায় রইলাম।

লেখাটি পুর্ব প্রকাশিতঃ আমার ব্লগ

আমি তো মুক্তিযোদ্ধা ! আমি এইগুলারে ভয় পামু ক্যান?

Leave a Reply